মোবাইলে ‘ডার্ক মোড’ ব্যবহার, বিপদ বাড়ছে নাকি কমছে?

০৯ মে, ২০১৯   |   thepeoplesnews24

সংগৃহীত

অনলাইন ডেস্ক:

সকালে ঘুম ভাঙার পর থেকে ঘুমোতে যাওয়া পর্যন্ত, প্রায় সকলেরই সর্বক্ষণের সঙ্গী স্মার্ট ফোন। তাই স্মার্টফোনকে আরও আকর্ষণীয় করতে তুলতে মাঝে মধ্যেই নতুন নতুন ফিচার আনে মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলি। তেমনই একটি ফিচার হল নাইট মোড বা ডার্ক মোড। যা মুহূর্তে আপনার ফোনের স্ক্রিনের রং বদলে দেবে। 'ব্যাকগ্রাউন্ড কালার' হয়ে যাবে কালো।  

অনেকে মনে করেন, এভাবে চোখের ক্ষতি এড়ানো যাবে। তাছাড়া ডার্ক মোড ব্যাবহার করলে ব্যাটারিও সেভ করা যায় অনেকটা। কিন্তু আপনি কী জানেন বিশেষ এই মোড ঠিক কতটা ক্ষতি করছে আপনার?

মোবাইলের সুবিধা যতই থাক, এর প্রচুর ক্ষতিকর দিকও রয়েছে। সেকথা কমবেশি সকলেই জানেন। পাশাপাশি, সেই সব ক্ষতিকর দিক থেকে সকলকে রক্ষা করতে বিভিন্ন ফিচারও যোগ হয়েছে মোবাইলে। সেরকমই একটি হল ডার্ক মোড বা নাইট মোড। চলতি সময়ে যে সব মোবাইল ফোন বাজারে আসছে তার প্রায় সবকটিতেই এই অপশনটি থাকে। আর যে মোবাইলে নেই সেক্ষেত্রে অ্যাপ স্টোরে মেলে এই ‘ডার্ক মোড’। 

 

কিন্তু কী হয় এই মোড ব্যবহারে? এই মোড ব্যবহার করলে নিমেষেই আপনার স্ক্রিনের ‘ব্যাকগ্রাউন্ড কালার’ কালো হয়ে যায়। দাবি করা হয়, এই মোড ব্যবহারে মোবাইল ফোনের রশ্মি থেকে চোখে যা ক্ষতি হয় তা কিছুটা রোধ করা সম্ভব। কিন্তু এক সমীক্ষায় জানা গেছে, নাইট মোড মানেই যে তা চোখের জন্য ভাল তা কিন্তু একেবারেই নয়। বরং কিছুক্ষেত্রে হিসেবটা উলটো।

বলা হয়েছে, সময় বুঝে ব্যবহার করতে হবে নাইট মোড। নাহলে ক্ষতিগ্রস্ত হয় আপনার চোখ। জানানো হয়েছে, আপনি যখন মোবাইল ফোনে ভিডিও দেখবেন তখন ব্যবহার করতেই পারেন এই ডার্ক মোড। কিন্তু ভিডিও দেখা ছাড়া আর প্রায় সবক্ষেত্রেই মোবাইল ফোনে ডার্ক মোডের ব্যবহার ক্ষতি করে আপনার চোখের। তাই প্রয়োজন বুঝে সঠিক ক্ষেত্রেই ব্যবহার করুন ডার্ক মোড।






নামাজের সময়সূচি

শনিবার, ২৫ মে, ২০১৯
ফজর ৪:২৬
জোহর ১১:৫৬
আসর ৪:৪১
মাগরিব ৬:০৯
ইশা ৭:২০
সূর্যাস্ত : ৬:০৯সূর্যোদয় : ৫:৪৩