সিঙ্গাপুরে নাবালিকার সঙ্গে প্রেম করে বিপাকে বাংলাদেশি প্রবাসী!

১৪ এপ্রিল, ২০১৯   |   thepeoplesnews24

সংগৃহিত

অনলাইন ডেস্ক:

দুজনে ভিনদেশি, ট্রেনে প্রথম দেখা। সেখান থেকে ফোন নাম্বার দেওয়া নেওয়া হয় তাদের। এরপরই ফোনে যোগাযোগ এবং গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক। এরপর মেয়েটির সম্মতিতে তিন বার যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হয় তারা।

এমনই ঘটনা ঘটেছে সিঙ্গাপুরে। অপ্রাপ্তবয়স্কা একটি মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক স্থাপন করে ধর্ষণের অভিযোগে বাংলাদেশি এক নির্মাণ শ্রমিকের ২২ বছরের জেল দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত। দণ্ডপ্রাপ্ত রতন চন্দ্র দাসকে (৪১) কারাদণ্ডের পাশাপাশি ১৮ ঘা বেত্রাঘাতেরও নির্দেশও দেয়া হয়েছে।

রবিবার (১৪ এপ্রিল) খবরটি প্রকাশিত হয়েছে অনলাইন সংবাদ মাধ্যম দ্য স্ট্রেইটস টাইমসে। রতন ধর্ষণের তিন দফা অভিযোগ স্বীকার করে নেয়ার পর শুক্রবার ওই রায় দেয় দেশটির একটি আদালত।

এসব অপরাধ সংঘটিত হয় ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে এপ্রিলের মধ্যে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ধর্ষিতার বয়স মাত্র ১২ বছর।

সিঙ্গাপুরের হাইকোর্টের শুনানিতে বলা হয়েছে, ২০১৭ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি ওই নাবালিকা তার আত্মীয়দের সঙ্গে ট্রেনে ভ্রমণ করছিল। ওই একই ট্রেনে ছিল রতন। সেখান থেকে ফোন নাম্বার দেওয়া নেওয়া হয় তাদের। এরপরই ফোনে তাদের যোগাযোগ হয় এবং প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। যৌন মিলনেও সম্মতি দেয় ওই মেয়েটি। ফলে তিন বার লোয়ার পিয়ার্স রিজাভয়ের পার্কে, অং মো কিও টাউন গার্ডেন ইস্ট এবং এইচডিবির ডেকেও তারা যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হয়।

২৩ এপ্রিল মেয়েটির মা তার মোবাইল ফোনে অশ্লীল কিছু এসএমএস দেখত পান এবং পরের দিন তার মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়া হয়। তাতে আরো কিছু রেকর্ডিং, ছবি এবং ভিডিও পাওয়া যায়, যার বেশিরভাগই ছিল যৌন উত্তেজক। এরপর ২৫ এপ্রিল মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে তারা পুলিশে রিপোর্ট করতে যান। পরের দিন গ্রেপ্তার করা হয় রতনকে।

এ মামলায় ডেপুটি পাবলিক প্রসিকিউটর উইনস্টন ম্যান আদালতে রতনের কমপক্ষে ২২ বছর জেল ও ১৮ ঘা বেত্রাঘাত দাবি করেন। এর প্রেক্ষিতে আদালত ওই রায় দেন।






নামাজের সময়সূচি

শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল, ২০১৯
ফজর ৪:২৬
জোহর ১১:৫৬
আসর ৪:৪১
মাগরিব ৬:০৯
ইশা ৭:২০
সূর্যাস্ত : ৬:০৯সূর্যোদয় : ৫:৪৩