বৃহস্পতিবার, ১২ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, দুপুর ১:৫৪
রিপোর্টারের নাম
  • আপডেটের সময়ঃ ডিসেম্বর, ২, ২০১৯, ৮:০৫ অপরাহ্ণ
  • 20 বার দেখা হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক:
বাজারে পেঁয়াজের দাম কোনোভাবেই কমছে না। একটু লাভের আশায় চলনবিলের কৃষকরা এবার বেশি জমিতে আগাম জাতের ডাটি পেঁয়াজ রোপন করেছে। তবে জমির এই পেঁয়াজ নিয়ে বিপাকে পড়েছে কৃষকরা। প্রতিদিন ক্ষেত থেকে পেঁয়াজ চুরি করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এতে দিশেহারা হয়ে রাত জেগে কুপি বাতি জ্বালিয়ে ক্ষেত পাহারা দিচ্ছে কৃষকরা।

সরেজমিনে চলনবিল অধ্যুষিত সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার নাদোসৈয়দপুর, হেমনগর, চর-হামকুড়িয়া, কাঁটাবাড়ি গ্রাম ঘুরে দেখা যায় অনেক কৃষক ডাটি পেঁয়াজ রোপন করেছে। দিনভর ক্ষেতের পরিচর্যা করলেও রাতে কুপি বাতিয়ে জ্বালিয়ে ক্ষেত পাহারা দিচ্ছে কৃষকরা।

বামুনগাড়া গ্রামের পেঁয়াজ চাষি তফের আলী, নূরুল ইসলাম ও ধারাবারিষা গ্রামের কফিল উদ্দিন জানান, প্রতি কেজি গাছ পেঁয়াজ ১৬০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এতে ভালো লাভবানও হচ্ছেন তারা। কিন্তু সম্প্রতি রাতে পেঁয়াজ চুরির ঘটনা ঘটতে শুরু করেছে। এ নিয়ে তারা দুশ্চিন্তায় রয়েছেন তারা। তাই রাত জেগে ক্ষেত পাহারা দিতে হচ্ছে।

নাদোসৈয়দপুর গ্রামের শারমিন খাতুন জানান, ‘ক্ষেত থেকে একটু আড়াল হলেই পেঁয়াজ চুরি হয়ে যাচ্ছে। খুব দুশ্চিন্তায় আছি।’

ধামাইচ গ্রামের বাসিন্দা প্রভাষক আবু হাশিম খোকন জানান, আগে কখনো পেঁয়াজ চুরির ঘটনা ঘটেনি। আগে কৃষকরা পেঁয়াজের পাতা ক্ষেতেই ফেলে দিত। কিন্তু বর্তমানে পেঁয়াজের দাম আকাশ চুম্বি হওয়ায় প্রায়ই চুরির ঘটনা ঘটছে।

দুর্মূল্যের বাজারে শুধু পেঁয়াজ নয় , পেঁয়াজের পাতা নিয়েও মানুষের মাঝে কাড়াকাড়ি করতে দেখা যাচ্ছে। অথচ অন্যান্য বছর গুলোতে কৃষকরা পেঁয়াজের পাতা জমির পাশে ফেলে দিত।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ পড়ুন