1. admin@thepeoplesnews24.com : admin :
  2. shohel.jugantor@gmail.com : alamin hosen : alamin hosen
বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:০২ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
সাংবাদিকদের উপর হামলার প্রতিবাদে কাজিপুরে মানববন্ধন নির্বাচনী ব্যবস্থা প্রবর্তনে এবি পার্টির গোল টেবিল আলোচনা জ্বালানি তেলের দাম নির্ধারণ করতে হাইকোর্টের রুল বেলকুচিতে ভোট শেষে ভবনের পিছনে পাওয়া গেলো সিল মারা ব্যালট ও রেজাল্ট সিট সাবেক যুবলীগ নেতা খলিলুল্লাহ আজাদ মিল্টনের বিরুদ্ধে অভিযোগের পাহাড় কমিউনিটি ক্লিনিকে সপ্তাহে ২দিনে ১হাজার জনসাধারণ পাচ্ছেন কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন রফিকুল ইসলামের মৃত্যুতে জাতি গর্বিত সন্তানকে হারালো : বাংলাদেশ ন্যাপ গণতন্ত্রের জন্য গণমাধ্যম অনস্বীকার্য : স্পিকার কাল থেকে পলিথিনমুক্ত হচ্ছে চট্টগ্রামের তিন কাঁচাবাজার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৭ বাড়িতে টাঙানো হবে লাল পতাকা

কাজিপুরে নদী তীর সংরক্ষণ বাঁধে আবারও ধস; আতংকে এলাকাবাসি

মোঃশফিকুল ইসলাম কাজিপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ
  • আপডেটের সময় : রবিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২১
  • ২৮০ বার দেখা হয়েছে

সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে যমুনা নদীর পশ্চিম তীর সংরক্ষণ বাঁধ ধসে দেবে গিয়ে নদী গর্ভে বিলীন হতে চলছে। ১৭ ই অক্টোবর শনিবার রাত ৩ টার দিকে কাজিপুর উপজেলার মাইজবাড়ি ইউনিয়নের ঢাকুরিয়া বাজারে পৃর্ব পাশে বিলচতল জিরো পয়েন্ট এলাকায় ঢেকুরিয়া ঘাট থেকে খলিলের বাড়ি পর্যন্ত প্রায় ১০০ মিটার এলাকা নদীতে দেবে গিয়ে ভাংগনের কবলে পরে। ১৭ই দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা ও জানা যায় যমুনা পশ্চিম তীর সংরক্ষণ বাঁধে বসবাস কারি সাইদ,রহিজ,নবির ও ওমিচা গত রাত ২.৩০ টার দিকে চিৎকার করে, তাদের বাড়িঘর বাঁধ ধসে নদী গর্ভে বিলীন হতেচলছে । খবর পেয়ে মাইজবাড়ি ইউনিয়নের স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম, ব্যবসায়ী হযরত আলী, শামীম রেজা,মনির, সাইফুল ইসলাম ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের কার্য্য সহকারী মাহবুব আলম সহ আরও অনেকে এসে তাদের বাড়ি ঘর ও একটি দোকান ঘর অন্য জায়গায় সরে নিয়ে যায়। ইউপিসদস্য সালাম জানান, রাত আড়াইটার দিকে ভাংগন শুরু হলে ।

মাইকিং করে এলাকা মানুষদের সমবেত করি।আমরা সাথে সাথে পানি উন্নয়ন বোর্ডকে খবর দিই। স্থানীয়বাসিন্দাদের সহযোগিতায় বাঁধে বসবাস কারিদের সরিয়ে নিয়ে যাই। খবর পেয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের লোকজন এসে কাজ শুরু করে। আজ সকাল ১০ টায় পানি উন্নয়ন বোর্ড সিরাজগঞ্জ নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থলে পরিদর্শন কালে বলেন, হঠাৎ করে ধসে পড়েছে, এতে আতংকে কিছু নাই। ভাংগন প্রতিরোধে( ২৫০ কেজি) জিওব্যাগ ডাম্পিং এর মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণের কাজ চলছে। নদীর ভিতরে চর জাগিয়ে উঠায় পানি স্রোত সরাসরি এ পাড়ে বাঁধের গোড়ায় এসে ধাক্কা খেয়ে ভাংগনের সৃষ্টি হয়েছে। এ সময় তিনি নীতিমালা বর্হিভুতভাবে বালু উত্তোলন, পরিবহন, বালু তুলে যেন নদী সংরক্ষণ বাঁধের তীর ঘেষে বালু না রাখে এ বিষয়ে পরামর্শ দেন। এ দিকে ভাংগন আতংকে রয়েছে স্থানীয় বাসিন্দারা ।

সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপসহকারী প্রকৌশলী মোঃহায়দার আলী বলেন, খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে লোকবল নিয়ে চলে আসি এবং তাৎক্ষণিক জিওব্যাগ ফেলে নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।আমাদের কাজ চলমান আছে। নদীর পৃর্ব দিকে চর পড়ার কারণে স্রোত পশ্চিম তীর ঘেষে পানি প্রবাহিতহচ্ছে। স্রোতের গতি তীব্র হওয়ায় ৯০ মিটার কাজের আংশিক নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে। নিয়ন্ত্রণ আনার সর্বাত্বক চেষ্টা চলছে। এ দিকে ভাঙনের ঝুঁকিতে পড়েছে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধসহ জনবসতি এলাকার ঢাকুরিয়া হাট সহ বিলচতল, মাইজবাড়ি, কুনকুনিয়া,পলাশপুর,মেঘাই ধুনট উপজেলার ভুতবাড়ি,পুখুরিয়া, ভান্ডারবাড়ি ও মাধবডাংগা গ্রাম।মাইজবাড়ি ইউনিয়ন আঃলীগের সভাপতি নাজমুল হুদা চয়ন বলেন, নদীর ভিতরে চর ড্রেজিংকরা হলে পানির স্রোতঅন্য দিক দিয়ে প্রবাহিত হলে ভাংগনে আশাংকা কমতো।এ এলাকায় একটি স্পার নির্মান হলে ভাংগনের ঝুঁকি কমতো। বাঁধ ধসে পড়ায় আশাংকায় আমরা ঝুঁকিতে আছি।


স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, যমুনা নদীর ডান তীর সংরক্ষণ প্রকল্পের আওতায় ২০১১-১২ অর্থ বছর থেকে কাজ শুরু হয়। শেষ হয়েছে ২০১৪-১৫ অর্থ বছরে।

নদীর তীর স্লোপ করে তার ওপর জিও চট বিছিয়ে সিসি ব্লক প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে এই কাজ শেষ করে। প্রায় একমাস যাবৎ নদীর পানি কমতে কমতে অনেক স্থানে নাব্যতা সংকট দেখা দিয়েছে।

অথচ এই অবস্থায়ও জিরোপয়েন্ট অংশে প্রবল স্রোত ঘুর্ণাবর্তের সৃষ্টি হয়ে তীরে তীব্র আঘাত হানায় প্রকল্প এলাকায় ভাঙন দেখা যায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয়রা জানান, যমুনার যত্রতত্র থেকে বালি উত্তোলন,নদীর মাঝে চর জেগে ওঠায়, নদীর তীর সংরক্ষণ এলাকা দিয়ে বালি পরিবহন, নদীতে চর জেগে ওঠায় স্রোত পশ্চিম তীর ঘেষে প্রবাহিত হওয়ায় , নাব্যতা সংকটে, প্রকল্পের পাশ দিয়ে বালিবাহী ভারী যান চলাচল করায় এ এলাকায় বিভিন্ন সময়ে ধসের সৃষ্টি হয়।

অনেকাংশে বাঁধের ব্লক নদীতে চলে যাওয়ার ফলে বড় বড় ফাটল তৈরি হয়েছে।এতে ভাঙনে ঘরবাড়ি হারানোর ভয়ে আছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

দয়া করে এই পোস্টটি আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
©২০১৫ ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Theme Customized BY Limon Kabir