আজ ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কুড়িগ্রামে সরকারি অনুদানের গুজব: আবেদন করতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ভিড়

খবরটি নিচের যেকোন মাধ্যমে শেয়ার করুন



মোঃবুলবুল ইসলাম,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামে করোনার কারণে শিক্ষার্থীদের ১০ হাজার টাকা সরকারি অনুদান দেওয়ার ‘গুজব’ ছড়িয়ে পড়েছে।

রবিবার (৭মার্চ) শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এটি করোনা প্রণোদনা বা স্টুডেন্ট ভাতা নয়। গত বছরের মতো এ বছরও শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে বিশেষ অনুদানের জন্য আবেদন চাওয়া হয়েছে। এ ছাড়া সংস্কার, আসবাবপত্র, খেলার সামগ্রী এবং পাঠাগার উন্নয়নের জন্য বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আবেদন করতে পারবে। রবিবার আবেদনের শেষ সময়।

অন্যদিকে গুজবের কারণে গত দুইদিন থেকে গভীর রাত পর্যন্ত শহর ও গ্রামের সকল ফটোকপি ও অনলাইন সার্ভিসের দোকানগুলোতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা যায়। তবে, ওয়েবসাইটে (সার্ভার) ঢোকা যাচ্ছিল না।

কম্পিউটার ও অনলাইন সার্ভিসের দোকানগুলো শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের কাছ থেকে ফরম পূরণের জন্য ১০০ টাকা আদায় করার অভিযোগ উঠেছে।

ফরম পূরণের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানদের প্রত্যয়ন নিতে শহরের স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসাগুলোতেও শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ভিড় দেখা গেছে।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, কিছু কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিনা মূল্যে প্রত্যয়ন দিলেও প্রায় সব প্রতিষ্ঠান ১০০-১৫০ টাকার বিনিময় প্রত্যয়ন দিচ্ছে।

বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা বলেন, সবাইকে এই অনুদান দেয়া হবে না। সরকারি চিঠিতে বলা হয়েছে- দুস্থ, প্রতিবন্ধী, গরিব ও অনগ্রসর ছাত্র-ছাত্রীরা অগ্রাধিকার পাবেন। দুরারোগ্য ব্যাধি ও দৈব দুর্ঘটনার শিকার শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা এই অনুদানের জন্য আবেদন করতে পারবেন। চিঠিতে সব শিক্ষার্থীর আবেদনের সুযোগ নেই। কিন্তু গুজবের কারণে সবাই প্রত্যয়নের জন্য ভিড় করছে।

এক শিক্ষার্থী জানান, করোনায় শিক্ষার্থী ভাতা হিসেবে ১০ হাজার টাকা প্রদান করার বিষয়ে শুনে শহরে এসেছেন। দুপুরে প্রতিষ্ঠান প্রধানের কাছ থেকে প্রত্যয়ন নিয়ে অনলাইনে আবেদন করার জন্য গিয়েছেন। তবে সার্ভারে ঢোকা যাচ্ছে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আর নিউজ দেখুন