আজ ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সলঙ্গা থানা পুলিশের ৭ মার্চ ও আনন্দ উদযাপন

খবরটি নিচের যেকোন মাধ্যমে শেয়ার করুন

সলঙ্গা (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ
সিরাজগঞ্জের সলঙ্গা থানা পুলিশ ঐতিহাসিক ৭ ই মার্চ ও বাংলাদেশ এলডিসি থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরনে জাতিসংঘের চুড়ান্ত সুপারিশ প্রাপ্তিতে আনন্দ উদযাপন অনুষ্ঠান করেছে। দিবসটি উপলক্ষে সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অপর্ন করা হয়। বিকেল তিনটায় একযোগে সারা দেশের ন্যায় সলঙ্গা থানায় ৭ ই মার্চ ও আনন্দ উদযাপন করা হয়। সলঙ্গা থানায় কেক কাটা,আলোচনা সভা ও বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাসন বাজানো হয়। সলঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল কাদের জিলানীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সিরাজগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সিরাজগঞ্জ সদর সর্কেল) স্নিগ্ধ আকতার,
সলঙ্গা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব রায়হান গফুর, সহ-সভাপতি ফনি ভুষন পোদ্দার, সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান লাভু, সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম হিরো, সদস্য আতাউর রহমান ফকির, পুলিশ পরিদর্শক হুমায়ুন কবির।

অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, সাধারণ সম্পাদক আলতাফ হোসেন, নলকা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি কাওসার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সাত্তার, সলঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আকমল হোসেন বাদশা, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, থানা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মাহমুদুল হক, রিয়াদুল ইসলাম ফরিদ,থানার উপ-পরিদর্শক শেখ সজিব, সোহাগ রানা, সলঙ্গা থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শহিদুল ইসলাম সেলিম, সভাপতি তাওহীদুর রহমান বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক রিপন সরকার প্রমুখ।

সভায় বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধুর ১৮ মিনিটের এই ভাষণ মানুষকে নিস্তব্ধ করেছিলেন, জাতিকে একত্রিত করেছিলেন। এই ভাষণে জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন হিন্দু-মুসলমান বাঙালি-অবাঙালি সবাই আমরা ভাই ভাই। বীর বাঙালি অস্ত্র ধর, বাংলাদেশ স্বাধীন কর। বঙ্গবন্ধুর এই দিক নির্দেশনা বক্তব্যেই বাঙালি জাতি উদ্বুদ্ধ হয়ে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন। যা বাঙালির বুকে আজও নাড়া দেয়। ৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে এই বাংলায় ও এই বাংলার আকাশে বাতাসে এখনও ধ্বনিত হয়। বঙ্গবন্ধুর অমর বাণী, এবারের সংগ্রাম, মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম, স্বাধীনতার সংগ্রাম। আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মেধা-দক্ষতা ও দেশ প্রেমের কারনেই দেশ আজ উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে। তার দক্ষতাতেই বাংলাদেশ সোনার বাংলাদেশ পরিণত হবে। তাই শেখ হাসিনার প্রতি আস্থা ও বিশ্বাস রেখে তাকে সবসময় সহযোগিতা করার প্রয়োজন বলে মনে করেন বক্তারা।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আর নিউজ দেখুন