আজ ৪ঠা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৮ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সলঙ্গায় চেয়ারম্যান প্রার্থী আরিফ তালুকদারের প্রচারণায় বাধা ফেসবুকে ভিডিও ভাইরাল

খবরটি নিচের যেকোন মাধ্যমে শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক:
সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আরিফুল ইসলাম তালুকদারের প্রচারণনার পোস্টার সাটানোতে বাধা দিল হাটিকুমরুল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান হেদায়তুল আলম রেজার ভাতিজা মানিক মিয়া। সোমবার বিকেলে হাটিকুমরুল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ কার্যালের সামনে এ ঘটনা ঘটে।


জানা গেছে,  সলঙ্গা থানা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক,  হাটিকমুরুল ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আরিফুল ইসলাম তালুকদারের পোষ্টার লাগচ্ছিল জেলা ছাত্রলীগ, থানা ছাত্রলীগ ও ইউনিয়ন ছাত্রীগের নেতাকর্মীরা। হাটিকুমরুল ইউনিয়ন  আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের সামনে পোষ্টার লাগাতে গেলে হাটিকুমরুল ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান হেদায়তুল আলম রেজার ভাতিজা ও হাটিকুমরুল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি  মানিক মিয়া পোষ্টার সাটাতে বাধা দেয় এবং   বঙ্গবন্ধু, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, সাবেক মন্ত্রী, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি -সাধারণ সম্পাদক,  সিরাজগঞ্জ-১ ও সিরাজগঞ্জ-৪ আসনের এমপির,  থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের ছবিসহ পোষ্টার ছিড়ে ফেলে এসময় কয়েক জন ছাত্রলীগ বাধা দিলে তাদেরকে লাঞ্চিত করে । এবং যে সকল ছাত্রলীগ নেতা পোষ্টার সাটাতে যায় তাদের আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের সামনে থেকে তারিয়ে দেয় মানিক।

এমন ঘটনার ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হলে ফেসবুকে আলোচনার ঝর বইছে। সেই সাথে এমন ঘটনার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছে।


অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা মানিক মিয়ার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন কল রিসিফ না করায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

জেলা ছাত্রলীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক উপ -সম্পাদক সৌরভ হাসান সুভ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা,সাবেক মন্ত্রী মোহাম্মাদ নাসিম, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) এ্যাড. হোসেন আলী হাসান -সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) আব্দুস সামাদ তালুকদার,  সিরাজগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়,  সিরাজগঞ্জ-৪ আসনের  সংসদ সদস্য তানভীর ইমাম, সলঙ্গা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব রায়হান গফুর ও সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান লাভুর ছবিসহ পোষ্টা যারা ছিড়ে ফেলতে পারে তারা ছাত্রলীগ করার অধিকার রাখতে পারে না। আমি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ও জেলা ছাত্রলীগের নেতাদের কাছে অনুরোধ করি তারা যেন দ্রুত সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।

সলঙ্গা থানা ছাত্রলীগের সভাপতি তাওহিদুর রহমান বাচ্চু ও সাধারণ সম্পাদক রিপন হাসান জানান, ফেসবুকে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আরিফুল ইসলাম তালুকদারের পোষ্টার সাটানোতে বাধা দেবার ভিডিও দেখেছি এমন ঘটনার বিষয়টি নিয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ও জেলা ছাত্রলীগের নেতাদের সাথে কথা বলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সলঙ্গা থানা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও হাটিকুমরুল ইউনিয়ন পরিষদের আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী আরাফাত রহমান বলেন, হাটিকুমরুল ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান হেদায়তুল আলম রেজার ভাতিজা মানিক মিয়া পোষ্টার সাটানোতে বাধা দেবার ঘটনা ফেসবুকে দেখেছি। বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক দেশ যারা আওয়ামীলীগের রাজনীতি করেন যে কেউ দলীয় মনোনয় পত্যাশী হতেই পারে। কিন্তু বর্তমান চেয়ারম্যান হেদায়তুল আলম রেজার ভতিজাসহ বেশ কিছু লোক জন তার লালীত মাস্তান। সে সব কিছুতেই জের পূর্বক করতে চায়। তাদের পক্ষে এমন কোন কাজ নেই যে করতে পারে না। হোক সে নিজে বা আইন প্রয়োগকারী সংস্থা, তার লালীত মাস্তান দিয়ে । আমি এমন ঘটনার তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।  এবং দলীয় ভাবে চেয়ারম্যান ও তার ভাতিজার বিরুদ্ধে যেন সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করেন সিনিয়র নেতারা।

হাটিকুমরুল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও হাটিকুমরুল ইউনিয়ন পরিষদের আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী আব্দুল্লাহেল কাফি জানান, গণতান্ত্রিক দেশ বাংলাদেশ বাংলাদেশের নাগরিক যে কেউ চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হতেই পারে। আর যারা আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জরিত তারা আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয় প্রত্যাশী হতেই পারেন। আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয়ন দিবেন জননেত্রী প্রধাণ মন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি যাকে মনোনয় দিবেন তার পক্ষে কাজ করবো। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সিনিয়র নেতার ছবি সহ পোষ্ট ছিড়তে পারে তার আওয়ামীলীতের রাজনীতির সাথে জরিত হতে পারে না।  এমন ঘটনায় অামি নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

হাটিকুমরুল ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান হেদায়তুল আলম রেজার সাথে মুঠোফোনে  যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।


স্বেচ্ছসেবকলীগ নেতা ও হাটিকুমরুল ইউনিয়ন পরিষদের আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী  আরিফুল ইসলাম তালুকদার বলেন, আমি এক জন আওয়ামী পরিবারের সন্তান ছাত্র জীবন থেকে থানা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক ও থানা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আসছি। আমি  আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয় প্রত্যাশী চেয়াম্যান পদপ্রার্থী হবার পর থেকে একটি কুচক্রি মহল আমার বিরুদ্ধে উঠে পরেছে। বিভিন্ন ভাবে আমাকে ও আমার কর্মীদের কে ভয় ভিতি দেখাচ্ছিল ও বাধা দিচ্ছিল। আজ সোমবার বিকেলে আমার কর্মীরা হাটিকুমরুল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ কর্যালয়ের সামনে পোষ্টার সাটাতে গেলে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মানিক মিয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা,সাবেক মন্ত্রী মোহাম্মাদ নাসিম, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) এ্যাড. হোসেন আলী হাসান -সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) আব্দুস সামাদ তালুকদার,  সিরাজগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়,  সিরাজগঞ্জ-৪ আসনের  সংসদ সদস্য তানভীর ইমাম, সলঙ্গা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব রায়হান গফুর ও সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান লাভুর ছবিসহ পোষ্টা ছিড়ে ফেলে এবং ছাত্রলীগ নেতাদের লাঞ্চিত করে। কেন্দ্রীয় ও জেলা ছাত্রলীগের নেতাদের কাছে অভিযুক্ত মানিক মিয়ার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেবার জোর দাবি জানান তিনি।



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আর নিউজ দেখুন