আজ ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

নিয়ামতপুরে অজ্ঞান হওয়ার কারণে ধর্ষনের হাত থেকে রক্ষা পেলো গৃহবধূ : অভিযুক্ত জেল হাজতে

নিউজ টি নিচের যেকোন মাধ্যমে শেয়ার করুন

নওগাঁর নিয়ামতপুরে গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে কামরুজ্জামান নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। ভুক্তভোগী বাদী হয়ে মামলার চারঘন্টা পর সোমবার ভোরে অভিযুক্তকে নিজ বাড়ি থেকে আটক করে। তিনি উপজেলার ভাবিচা ইউনিয়নের ভালাতৈড় (ফাটকিপাড়া) গ্রামের মৃত মোস্তফার ছেলে।

জানা গেছে, স্বামীর দিনমজুর কাজের জন্য ভুক্তভোগী গৃহবধূ সারাদিন বাড়ীর বাইরে থাকেন। গত ১১নভেম্বর বাড়ির পাশে মাঠে হাঁস খুঁজতে যাওয়ার সময় কামরুজ্জামান গৃহবধূকে জোর করে সেচপাম্পের ঘরে (মর্টার) ঢুকায়। মুখে গামছা চেপে ধর্ষণের চেষ্টা করলে গৃহবধূ অজ্ঞান হয়ে পড়ে। কামরুজ্জামান তাকে ঘরের ভিতরে রেখে দরজা বন্ধ করে পালিয়ে যায়। পরে গৃহবধূর জ্ঞান ফিরে দেখেন ঘরের দরজা বাহির থেকে আটকানো। গৃহবধূর চিৎকার শুনে তার জা ও প্রতিবেশীরা তাকে ঘরের তালা ভেঙে উদ্ধার করে।

কামরুজ্জামান দীর্ঘদিন থেকে ওই সেচপাম্প দিয়ে জমিতে পানি সেচ করে আসছেন। ঘটনার পর কামরুজ্জামান বিভিন্ন ভাবে গৃহবধূ ও তার স্বামীকে ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছিলেন। ভুক্তভোগী পরিবারটি থানায় যেতে না পেরে স্থানীয়ভাবে মিমাংসার জন্য নেতাদের পিছে ঘুরতে থাকে। কোথাও কোন বিচার না পেয়ে অবশেষে থানায় মামলা দায়েরের চার ঘন্টার মধ্যেই পুলিশ আসামী কামরুজ্জমানকে গ্রেফতার করে।

নিয়ামতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ন কবির বলেন, গত রোববার রাতে গৃহবধূ বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। সোমবার ভোর ৪টায় কামরুজ্জামানকে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। সোমবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আর নিউজ দেখুন