আজ ১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সলঙ্গায় পরকিয়া প্রেমিকের বাড়ীতে প্রেমিকার অনশন

খবরটি নিচের যেকোন মাধ্যমে শেয়ার করুন

সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় বাসুদেবকোল গ্রামে ওয়াজেদা খাতুন (৪০) নামের তিন সন্তান জননী বিধবা নারী বিয়ের দাবীতে পরকিয়া প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করেছে।
ওয়াজেদা খাতুন নাজনীন সলঙ্গা থানার নাইমুড়ি গ্রামের মৃত ফজলার রহমানের স্রী ।


শনিবার(২৫ জুলাই) বিকেলে সলঙ্গা থানার বাসুদেবকোল গ্রামের সোবাহান খানের ছেলে নাজমুল ইসলাম সবুজ খানের বাড়ীতে তার পরকিয়া প্রেমিকা অনশন করে।

প্রেমিকা ওয়াজেদা খাতুন নাজনীন বলেন,
সাথে দীর্ঘ ৮ বছর যাবৎ প্রেমের সম্পর্ক তাদের। এর মধ্যে প্রেমিক সবুজ তার কাছ থেকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে প্রায় ২০ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। কিন্তু বিয়ের কথা বললে সে আমার কথা আর শোনে না তাই আমি সবুজ বাড়িতে আসি,কিন্তু আমার আসার কারনে সে আমাকে ব্যাপক মারধর করে পালিয়ে গেছে।

এর পর তাদের পরিবারের সবাই আমাকে প্রাননাশের হুমকি দিয়ে বাড়ী থেকে জোর পুর্বক তাড়িয়ে দেবার চেস্টা করছে ।

এবিষয়ে অজেদা খাতুন নাজনীন আরো বলেন, আমার স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে সবুজ আমাকে বিভিন্নভাবে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে আমার সাথে প্রেমের এবং দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন অজুহাতে আমার কাছ থেকে   টাকা হাতিয়ে নেয়।

শেষ মেষ গত ১৫ দিন আগেও বিয়ের কথা বলে আমার ২ ভরি সর্ণের গোহনা বিক্রি করে নিয়ে গত ৭ দিন আগে অনত্র বিয়ে করে। এর পর থেকেই সবুজ আমার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেই। এখন সব হারিয়ে আমি নিস্ব আমার সন্তাদের ভবিষ্যৎ ও অনিশ্চিত হয়ে পরেছে।

শশুর বাড়ির লোকজন আমাকে আর শশুর বাড়িতে নিচ্ছেনা। সবুজ যদি আমাকে বিয়ে না করে তাহলে আমার আত্মহাত্যা ছারা পথ থাকবেনা। সবুজ বিয়ে না করা পর্যন্ত তিনি ঐবাড়িতেই অবস্থান করবেন বলেও জানান, এ ঘটনার পর থেকে এলাকায় ব্যাপক আলোরন সৃষ্টি হয়েছে।

   নব বিবাহিত স্ত্রীর সাথে সবুজ


 নাজমুল ইসলাম সবুজ খান এর বক্তব্যের জন্য তার বাড়ীতে গেলেও তাকে খুজে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে সলঙ্গা থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

সলঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জেড জেড তাজুল হুদা বলেন, অভিযোগ পাইনি পাইলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আর নিউজ দেখুন