শুক্রবার, ২৪শে জানুয়ারি, ২০২০ ইং, রাত ১২:২১
সর্বশেষ :
সংবাদ শিরোনামঃ
রিপোর্টারের নাম
  • আপডেটের সময়ঃ জানুয়ারি, ১৩, ২০২০, ৫:৫৯ অপরাহ্ণ
  • 10 বার দেখা হয়েছে

অনললাইন ডেস্ক:
ইরাকে অবস্থিত মার্কিন ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর আবারও একই রকম হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে ইরান। আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই তারা হামলা চালাবে। ইসরায়েলি গোয়েন্দারা এই তথ্য জানিয়েছে।

ইসরায়েলি গোয়েন্দাদের বরাত দেশটির নিজস্ব ওয়েবসাইট দেবকাফাইল জানায়, ইউক্রেনের বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় কিছুটা চাপে আছে ইরান। এই চাপ থেকে বেরিয়েই মার্কিন ঘাঁটিতে হামলা শুরু করবে তারা। এ সময় মধ্যপ্রাচ্যের সব মার্কিন ঘাঁটিতে হামলা চালানো হবে। হামলার শুরু হবে ইরাক থেকে।

অনেকে মনে করছে, ইরাকের দুই মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার পরই থেমে গেছে ইরান। তারা আর কোনো হামলা চালাবে না। এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ কয়েকজন প্রশাসনিক কর্মকর্তাও এমনটি মনে করছেন। তবে এ রকম ধারণা ভুল। ইরান আরও বড় হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

ইসরায়েলি গোয়েন্দারা বলছে, ইরান আপাতত তাদের সামরিক কর্মকর্তাদের কিছুটা নীরব থাকার পরামর্শ দিয়েছে। একই সঙ্গে বড় হামলার প্রস্তুতি নিতেও বলা হয়েছে তাদের। এ সম্পর্কে এক ইসরায়েলি গোয়েন্দা বলেন, তেহরান সময় নিচ্ছে। সর্বোচ্চ দুই থেকে তিন সপ্তাহের মধ্যেই আবারও হামলা চালাবে তারা। পরবর্তী এই হামলার জন্য অস্ত্র ও সরঞ্জামাদি প্রস্তুত করছে দেশটির সামরিকবাহিনী।

প্রসঙ্গত, সোলাইমানি নিহত হওয়ার পর থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে সর্বোচ্চ উত্তেজনা বিরাজ করছে। ৮ জানুয়ারি (বুধবার) ভোররাতে সোলাইমানি হত্যার প্রতিশোধ হিসেবে ইরাকে অবস্থিত মার্কিন ঘাঁটিতে হামলা চালায় তেহরান।

এরপর ধারণা করা হচ্ছিল, ইরানের বিরুদ্ধে কঠিন কোনো পদক্ষেপই হয়তো নেবেন ট্রাম্প। কিন্তু বাস্তবে তা হয়নি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ইরানকে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছেন।

এর আগে ৩ জানুয়ারি (শুক্রবার) ভোররাতে ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলায় নিহত হন ইরানের শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তা জেনারেল কাসেম সোলাইমানি। তিনি ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর (আইআরজিসি) এলিট শাখা কুদস ফোর্সের প্রধান ছিলেন।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ পড়ুন