1. admin@thepeoplesnews24.com : admin :
  2. shohel.jugantor@gmail.com : alamin hosen : alamin hosen
সিংড়ায় বিনা চাষে সরিষার বাম্পার ফলন - Thepeoples News 24
রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৩:৩০ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
বেলকুচি উপজেলার তৃনমুল নেতাকর্মীদের আশ্বাস ও নারী নেতৃত্বের অনন্যা বেগম আশানুর বিশ্বাস : দীর্ঘ দশ বছর পর বেলকুচি উপজেলা আ:লীগের সম্মেলন : তৃনমুল নেতারা চায় কর্মীবান্ধব নেতা গুরুদাসপুর আশ্রয়ণ প্রকল্পর ৩৬ নারী পলা সলাই মশিন গ্যালাক্সি এ৭২ ও গ্যালাক্সি এ০৩ কোর স্মার্টফোনে আকর্ষণীয় ক্যাশব্যাক ও ছাড় দি”েছ স্যামসাং বীরগঞ্জে ইব্রাহীম মেমোরিয়াল শিক্ষা নিকেতনে বার্ষিক মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব অযৌক্তিক ও অগ্রহনযোগ্য : বাংলাদেশ ন্যাপ সরকার পতনের লড়াইয়ে শফিউল আলম প্রধান অনুপ্রেরনার উৎস :লুৎফর রহমান সলঙ্গায় বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু পাকেরহাটে পপুলার ডেন্টাল কেয়ার এর উদ্বোধন বড়াইগ্রাম হাঁসের খামারে বিদ্যুৎপৃষ্টে নারীর মৃত্যু

সিংড়ায় বিনা চাষে সরিষার বাম্পার ফলন

নাসিম উদ্দীন নাসিম:
  • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ৬৫ বার দেখা হয়েছে



শস্য ভান্ডার নামে খ্যাত নাটোরের সিংড়ার চলন বিল অঞ্চলে বিনা চাষে রসুনের পাশাপাশি বিনা চাষে সরিষার আবাদেও আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের। হাল চাষের খরচ না থাকায় অল্প খরচে অধিক লাভবান হচ্ছেন কৃষক। এছাড়া বন্যা কবলিত এই অঞ্চলে বন্যার পানি নামতে সময় লাগায় বছরে দুইবার ফসল উৎপাদন করা যেত।
এখন সেই জমি গুলোতে বন্যার পানি নামার সাথে সাথে বর্ষা কালীন ধান কাটার আগেই জমির জোবুঝে জমিতে সরিষার বীজ বোনা শুরু করেন কৃষক। ফলে এই অঞ্চলে এখন বছরে একই জমিতে ফসল উৎপাদন হচ্ছে তিনবার।

সরেজমিনে উপজেলার শেরকোল ইউনিয়নের আগপাড়ার মাঠে গিয়ে দেখা যায়, মাঠের পর মাঠ সরিষার ক্ষেত। হলুদ ফুল থেকে ধীরে ধীরে সবুজ দানায় পরিনত হচ্ছে। এই মাঠে প্রায় আড়াইশত একর জমিতে বিনা চাষে সরিষার চাষ হয়েছে। সরিষার বা¤পার ফলনে অধিক লাভের স্বপ্ন দেখছে কৃষকরা। এ সময়ে চলন বিলের অন্য এলাকায় আগাম জাতের সরিষা কাটা-মাড়াই শুরু হলেও এই মাঠের সরিষার জাত(রাই সরিষা) র্দীঘ মেয়াদী হওয়ায় এসব সরিষা ঘরে তুলতে এখনও ১৫ থেকে ২০ দিন সময় লাগবে বলে স্থানীয় কৃষকরা জানান।

শেরকোল আগপাড়ার রাসেল, শিবু ও লালন নামের সরিষা চাষীরা জানান, বর্ষাকালীন স্বর্ণা ধান কাটার আগে অর্থাৎ কার্তিক মাসের ১৫ তারিখ থেকে ৩০ তারিখের মধ্যে মাটির ‘জোবুঝে আমরা এই মাঠে গত কয়েক বছর ধরে বিনা চাষে রাই সরিষার চাষ করছি। এতে অল্প খরচে অনেক লাভবান হয়েছি। এবছরও ফলন ভালো হয়েছে। আমরা আশা করছি এবারও লাভবান হবো।

কৃষকরা জানায়, হাল চাষের খরচ না থাকায় প্রতি বিঘা জমিতে বীজ, সার, কীটনাশক, শ্রমিকসহ কাটা-মাড়াই করে ফসল ঘরে তুলতে তাদের সম্ভাব্য খরচ হবে ৩ থেকে ৪ হাজার টাকা। প্রতি বিঘা সরিষার ফলন যদি ৭ থেকে ৮ মণ হয় এবংবর্তমান প্রতি মণ সরিষার বাজার ২ হাজার ৫শত থেকে ২ হাজার ৮শত টাকা ঠিক থাকে তাহলে প্রতি বিঘা সরিষা বিক্রয় হবে ১৮ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকা এবং খরচ বাদে প্রতি বিঘায় তাদের লাভ হবে ১৪ হাজার থেকে ১৬ হাজার টাকা।

কৃষকরা আরো জানায়, সরিষা কাটা-মাড়াই এসব জমিতে তিল, পাট ও মাশকালাই এর চাষ করবেন। বিনা চাষের কারণে একদিকে যেমন খরচ কম হচ্ছে অন্য দিকে তেমনি সঠিক সময়ে চাষ করায় বছরে একই জমিতে তিনটি ফসল থেকে আগের চেয়ে দ্বিগুন আয় করছেন কৃষক।

উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোহাম্মদ সেলিম রেজা বলেন, চলতি মৌসুমে উপজেলায় ৩ হাজার ৮শত ৫০ হেক্টর জমিতে সরিষার চাষ হয়েছে। এর মধ্যে শেরকোল আগপাড়ার মাঠে প্রায় আড়াইশত একর জমিতে বিনা চাষে রাই সরিষার চাষ হয়েছে।

আগাম জাতের সরিষা কাটা মাড়াই প্রায় শেষের দিকে তবে রাই সরিষা কাটা-মাড়াই ১৫ থেকে ২০দিনের মধ্যে শুরু হবে। চলনবিল এলাকায় আগে এক থেকে দুই ফসল চাষ হতো ওই সব জমিতে এখন তিন ফসল উৎপাদন হচ্ছে। আমরা কৃষকদের সব ধরনের সহযোগিতা করছি। গত বার সরিষা চাষে কৃষক লাভবান হয়েছে।আমরা আশা করছি এবারও তারা লাভবান হবেন।


এই পোস্ট টি আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
©২০১৫-২০২২ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Theme Customized BY Limon Kabir