1. admin@thepeoplesnews24.com : admin :
  2. shohel.jugantor@gmail.com : alamin hosen : alamin hosen
ফুলপুরে মেডিকেল এসিস্টেন্ট হয়ে ডাক্তার পদবী ব্যবহার করছেন - Thepeoples News 24
মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১০:২৬ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
নাটোরের সিংড়ায় বিদ্যুৎ-তেল ছাড়াই সেচপাম্প তৈরী করা দেখতে উৎসুক জনতার ভীড় কাজিপুরে উপজেলা পরিষদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত কোরবানির বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় জনসচেতনতা তৈরিতে ডিসি ইউএনওদের নির্দেশ দক্ষিণাঞ্চলে বইছে নব জাগরণের ঢেউ পদ্মা সেতুর জন্য সরকারের দেওয়া ঋণ শোধ হবে ৩৫ বছরে পদ্মা সেতুতে নিরাপত্তা জোরদার, জলেস্থলে বাড়ানো হয়েছে গোয়েন্দা নজরদারি উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা শিল্পায়নকে ত্বরান্বিত করে: প্রধানমন্ত্রী নাটোরে বসুন্ধরা গ্রুপের কিং র্ব্যান্ড সিমেন্টের হালখাতা অনুষ্ঠিত নতুন সব ব্র্যান্ডের সাথে এবারে শপিংয়ের মজা আরো জমবে দারাজে সেরা ব্র্যান্ড, দূর্দান্ত প্রোডাক্ট আর আকর্ষণীয় ডিস্কাউন্ট নিয়ে উপভোগ করুন কেনাকাটার সেরা অভিজ্ঞতা! ইসিকে বাংলাদেশ ন্যাপ : ইভিএম’র উপর জনগণের কোন আস্থা নাই

ফুলপুরে মেডিকেল এসিস্টেন্ট হয়ে ডাক্তার পদবী ব্যবহার করছেন

মিজানুর রহমান ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ
  • আপডেটের সময় : বুধবার, ২৫ মে, ২০২২
  • ৫৭ বার দেখা হয়েছে

এ.এন.এম মাহফুজুল হক (বাবলু) যিনি ফুলপুর উপজেলার দুইটি ইউনিয়নের মেডিকেল এসিন্টেন হিসেবে কর্মরত আছেন অভিযোগ রয়েছে তিনি নিয়মিত অফিস না করেই শেরপুর রোডস্থ রিফাত মেডিকেল হল নামের সাইনবোর্ড ব্যবহার করে দীর্ঘদিন যাবৎ ভিজিট নিয়ে রোগী দেখে আসছেন।
এইদিকে আদালতের এক নির্দেশে বলা হয়েছে,বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল অ্যাক্ট ২০১০(২০, ডিসেম্বর ২০১০-এ প্রকাশিত গেজেট) এর ধারা ২২(১) ও ২৯(১) এর আওতায় MBBS/BDS বাদে অন্য চিকিৎসকদের নামের আগে ডাঃ(ডাক্তার) পদবী ও নামের পরে ডিগ্রী ব্যবহার অপরাধ । এদিকে আদালতে আদেশ অমান্য করে একজন মেডিকেল এসিস্টেন্ট হয়ে দীর্ঘদিন যাবত নামের আগে ডাঃ এ.এন.এম মাহফুজুল হক বাবলু (ডাঃ) পদবী ব্যবহার করে আসছেন।

বিভিন্ন অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,এলাকায় ডাক্তার পদবি প্রতিষ্ঠা করার জন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নাম ব্যবহার করে এবং পৌর কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় পৌরসভার আনোয়ার খিলা নামের রাস্তার নাম পরিবর্তন করে ডাঃ মাহফুজুল হক বাবলু নামে নামকরণ করে সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দেয় যা এখনো বাসার হোল্ডিং প্লেটসহ সরকারি বিভিন্ন কাগজে পত্রে আনোয়ার খিলা রোড নামেই পরিচিত এই ঘটনায় এলাকায় চাপা ক্ষুপ বিরাজ বিরাজ করছে।
জানা যায়, ডাঃ মাহফুজুল হক বাবলু ফুলপুরের ঐতিহ্যবাহী সুনামধন্য ফুলপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজ স্থাপনের স্বপ্নদ্রষ্টা, সাইটসিলেকশনকারী ও জমি ক্রয় করা হিসেবে দাবি করেন আসছেন।
এই বিষয়ে উক্ত কলেজ কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বললে তারা বলেন, তার দাবি গুলো সম্পুর্ন মিথ্যা ও বানোয়াট ভিত্তিহীন। এই কলেজের স্বপ্নদ্রষ্টা আমরা এই (নাম) পাঁচ জন ছিলাম তবে এই কলেজ স্থাপনের পর যে কেউ স্বপ্নদ্রষ্টা হিসেবে দাবি করতে পারে। মূলত আমরা এই পাঁচ জন স্বপ্ন দেখেছিলাম আমরা এই পাঁচজন মিলে আমাদের স্বপ্নকে বাস্তবে রুপ দিয়েছি। এই কলেজ স্থাপনের জন্য কোন জমি ক্রয় করা হয় নাই। এই কলেজের মোট এত একর জায়গায় আছে যা সম্পুর্ন দান সত্তে পাওয়া তাহলে সে কিভাবে জমি ক্রয় করা দাবি করে আমাদের জানা নেই। এই বিষয়ে তিনি আরো বলেন, আমরা যখন কলেজ নির্মাণ করি তখন আমি মাহফুজুল হক বাবলুর কাছে ৫০০ টাকার জন্য গিয়েছিলাম সে ৫টা টাকা দিয়ে সাহায্য করে নাই তাহলে সে কিভাবে স্বপ্নদ্রষ্টা দাবি করে। প্রতিবেদকের আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এতদিন আমরা জানতাম না আপনার মাধ্যমে আমরা জানতে পারি এই বিষয়ে কলেজের মাসিক মিটিংয়ে আলোচনা করে আমরা তাকে নোটিশ পাঠাব।

আনোয়ার খিলা বাসিন্দা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক থাকায় বলেন এক জন বলেন, এই রোডটি আনোয়ার খিলা রোড নামে জন্মের পর থেকে শুনে আসছি, হঠাৎ দেখি আনোয়ার খিলা রোডের নাম পরিবর্তন করে ডাঃ মাহফুজুল হক বাবলু নামে সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে রেখেছে । প্রতিবেদকের আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মূলত ডাক্তার পদবীটি এলাকায় প্রতিষ্ঠা করার জন্য এই রোডের নামকরন করেছেন। সে আসলে কোন এমবিবিএস ডাক্তার না সে হল মেডিকেল এসিস্টেন্ট মাত্র। একজন মেডিকেল এসিস্টেন্ট হয়ে কিভা‌বে ডাক্তার পদবী ব্যবহার করেছে ও চেম্বারে রোগী দেখছে এই নিয়ে জনমনে প্রশ্নবিদ্ধ।

এই পোস্ট টি আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
©২০১৫-২০২২ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Theme Customized BY Limon Kabir