গোপালগঞ্জের প্রায় ৪০টি স্থানে বসেছে বিদ্যার দেবী সরস্বতি মূর্তির হাট

০৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯   |   thepeoplesnews24

ছবি নিজস্ব


এম শিমুল খান, গোপালগঞ্জ :
 গোপালগঞ্জ শহরের খাটরা সার্বজনীন কালিবাড়ীতে বসেছে বিদ্যার দেবী সরস্বতি মূর্তির হাট। জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে মূর্তি নির্মাতারা (পাল) এখানে সরস্বতি দেবীর মূর্তি এনে বিক্রি করছেন। আগামী শনিবার ও রবিবার সরস্বতী পূজা উপলক্ষে এই মূর্তি বেচাকেনা চলছে। এ হাট চলবে আগামী শুক্রবার রাত পর্যন্ত।


এটি জেলার সবচেয়ে বড় মূর্তির হাট। প্রতিবছর এখানে সরস্বতী প্রতিমার হাট বসে। এই হাটে পাঁচ থেকে ছয় হাজার সরস্বতী প্রতিমা বেচাকেনা হয়ে থাকে। এ হাটে আড়াই থেকে সাড়ে হাজার টাকা দামের প্রতিমা উঠেছে। যে যার সাধ্য মতো কিনে নেয় দেবীর মূর্তি।
এছাড়া জেলার সদর উপজেলার সাতপাড়, পাটকেলবাড়ী, বাজুনিয়া, বৌলতলী, চন্দ্রদিঘলিয়া, কাশিয়ানী উপজেলার রামদিয়া, কাশিয়ানী সদর, সিংগা, তালতলা, ব্যাসপুর, মুকসুদপুর উপজেলার জলিরপাড়, বাটিকামারী, উজানী, ননীক্ষির, কোটালীপাড়া উপজেলার ঘাঘর, পয়সারহাট, হিরণ, ভাঙ্গারহাট, টুঙ্গিপাড়া উপজেলার পাটগাতী, বাঁশবাড়িয়া, ডুমুরিয়াসহ প্রায় ৪০টি স্থানে এ হাট বসে।
গোপালগঞ্জ শহরের খাটরা কালিবাড়ি হাটে আসা প্রতিমা শিল্পী চিত্ত পাল, খোকন পাল, সহাদেব পালসহ বেশ কয়েকজন জানিয়েছেন, এ বছর প্রতিমা তৈরির জিনিসপত্রের দাম বেশি হওয়ায় প্রতিমা বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। এর ওপরই আমাদের সংসার চলে। জিনিস পত্রের দাম বেশি, তাই আমরা একটু বেশি না নিয়ে পারছি না।


জেলা শহরের জনতা রোডের বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া অনন্যা ভক্ত বলেন, মূর্তির দাম বেশি। গত বছর যে মূর্তি ৫০০ টাকায় কিনেছি সেই মাপের মূর্তি এ বছর দেড় হাজার টাকায় কিনতে হচ্ছে। বিদ্যার দেবি এই বিশ্বাসে আমরা পূজা করি। তাই অনেকটা বাধ্য হয়েই বেশি দামে মূর্তি কিনতে হয়।
সদর উপজেলার বাজুনিয়া গ্রামের অতুল চন্দ্র পাল, মুকসুদপুর উপজেলার অমর পাল, রঞ্জন পাল, কমলেশ পাল, চিত্ত পাল, স্বপন পাল ও কোটালীপাড়া উপজেলার হিরন গ্রামের তাপস পালের সঙ্গে কথা হলে তারা বলেন, মূর্তি তৈরির উপকরণ হিসেবে লাগে বাঁশ, কাঠ, ছন ও রং। এর দাম বেড়ে যাওয়ায় মূর্তি দাম কিছুটা বেশি নিতে হচ্ছে। তবে ক্রেতারা দাম দেখে ফিরছেন না। যা এনেছি তা বিক্রি হয়ে যাচ্ছে।
হিন্দু ধর্ম মতে বিদ্যার দেবী সরস্বতী। হিন্দু শিক্ষার্থীরা দেবীর আশীর্বাদ লাভের আশায় প্রতি বছর পঞ্জিকা মতে মাঘ মাসের পঞ্চমী তিথিতে সরস্বতী দেবীর পূজা করেন। আগামী শনি ও রবিবার পূজা উপলক্ষে গোপালগঞ্জের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বাসাবাড়িসহ হিন্দু শিক্ষার্থীদের মাঝে দেখা যাচ্ছে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা।

 






নামাজের সময়সূচি

মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল, ২০১৯
ফজর ৪:২৬
জোহর ১১:৫৬
আসর ৪:৪১
মাগরিব ৬:০৯
ইশা ৭:২০
সূর্যাস্ত : ৬:০৯সূর্যোদয় : ৫:৪৩