সলঙ্গায় বিএডিসির গভীর নলকূপে টাকার পরিবর্তে জোড় পূর্বক ফসল নেওয়ার অভিযোগ

০৩ জানুয়ারী, ২০১৯   |   thepeoplesnews24

ছবি নিজস্ব :

রেজাউল করিম:
সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার সলঙ্গা থানার সলঙ্গা ইউনিয়নের দক্ষিনপাড়া ভরমোহনী গ্রামে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন অধীন ( বিএডিসি) ১৩৮ নং একটি গভীর নলকূপে কৃষকদের কাছ থেকে দীর্ঘদিন ধরে সেচের বিপরীতে নগদ টাকা না নিয়ে জোড় পূর্বক ধান নেওয়ার অভিযোগ নিষ্পত্তি হয়নি দীর্ঘদিনেও। প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তর বরাবর ওই নলকূপের অধীন প্রায় ২’শ কৃষক গণস্বাক্ষর দিয়ে অভিযোগ করে ৫ বছরেও কোন প্রতিকার পাচ্ছে না। অভিযোগ করার কারণে কৃষকদের নানা ভাবে হুমকি দিয়ে জোড় পূর্বক জমি থেকে ফসল ছিনিয়ে নিচ্ছে ওই নলকূপে দায়িত্বে থাকা ম্যানেজার। বিষয়টি নিয়ে উপজেলা সেচ কমিটির সভাপতি ও উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিএডিসি কর্তৃপক্ষ ও  উপজেলা চেয়াম্যান নলকূপের ম্যানেজারকে বার বার ফসলের পরির্বতে টাকা নেয়ার নির্দেশ দিয়ে চিঠি দিলেও তা আমলে নেয়া হচ্ছে না।

কৃষকদের লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,উল্লাপাড়া উপজেলার সলঙ্গা ইউনিয়নের দক্ষিন পাড়া ভরমোহনী গ্রাামে প্রায় ৮ বছর পূর্বে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) প্রকল্পের অধীন একটি গভীর নলকূপ স্থাপন করা হয়। সরকারী নিয়ম নীতি অনূর্যায়ী কৃষকদের সল্প টাকায় সেচ সুবিধার জন্য নলকূপটি স্থাপন করা হলেও তা মানা হয়নি। ওই নলকূপটির ম্যানেজার দক্ষিপাড়া ভরমোহনী গ্রামের মৃত জোনাব আলীর ছেলে আব্দুল খালেকসহ ১৩ জন ক্ষমতার প্রভাবে জোড় পূর্বক কৃষকদের কাছ থেকে নগদ টাকা না নিয়ে ৫ ভাগের এক ভাগ ফসর নিচ্ছে। এ নিয়ে নলকূপটির অধীন প্রায় ২ শ’কৃষক প্রতিকার চেয়ে দীর্ঘ দিন যাবৎ প্রশাসনের বিভিন্ন দফতর বরাবর লিখিত অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার পাচ্ছে না। সর্বশেষে আদালতে গিয়ে গ্রাম বাসির পক্ষে আব্দুল বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। আদালত ২৪ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে এ্যাসিল্যান্ড উল্লাপাড়া ও সলঙ্গা থানাকে তদন্ত করে প্রতিবেদন পাঠানোর নির্দেশ দেন।

সরেজমিনে দক্ষিনপাড়া ভরমোহনী গ্রামে গিয়ে আব্দুল বারিক, খোদেজা খাতুন ও হায়দার আলী জানান, বিএডিসি গভীর নলকুপ পরিচালনা কমিটির কাছে টাকা দিতে চাইলে তারা টাকা ফেরত দিয়ে ফসলের ৫ ভাগের এক ভাগ দিতে বলেন। ফসল না দিলে জোরপূর্বক ফসল ছিনিয়ে নেয় এবং প্রাণনাশের হুমকি দেয়।

এ বিষয়ে বিএডিসির গভীর নলকুপটির দায়িত্বে থানা আব্দুল খালেকের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বিএডিসির অফিসার স্যারের সাথে যোগাযোগ করেই আমার এবছর টাকার পরিবর্তে ফসল নিচ্ছি। টাকার পরিবর্তে ফসল দিতে না চাইলে কৃষকদের হুমকি দেবার বিষয়ে বলেন কৃষকরা ফসল কেটে নিয়ে তারা নিজ ইচ্ছায় ফসল রেখে গেছে আমার সেই ফসল নিয়েছি।

সলঙ্গা থানার উপ-পরিদর্শক আসলাম আলী জানান, দুই পক্ষকে ডেকে ফসলের পরিবর্তে টাকা দেবার কথা বলে এসছি। পরে আর কোন অভিযোগ পাইনি।

এ বিষয়ে উল্লাপাড়া উপজেলা সেচ কমিটির সভাপতি ও উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.আরিফুজ্জামানের সাথে কথা হলে তিনি জানান,এমন কোন অভিযোগ আামার জানা নেই। তবে কেউ অভিযোগ করলে তা দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

 






নামাজের সময়সূচি

রবিবার, ২৪ মার্চ, ২০১৯
ফজর ৪:২৬
জোহর ১১:৫৬
আসর ৪:৪১
মাগরিব ৬:০৯
ইশা ৭:২০
সূর্যাস্ত : ৬:০৯সূর্যোদয় : ৫:৪৩