মালিকানা জমি থেকে জোড় পূর্বক মাটি কাঁটার অভিযোগে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে: আদালতে মামলা

০৮ নভেম্বর, ২০১৮   |   thepeoplesnews24

ছবি প্রতিনিধি :

বিশেষ প্রতিবেদক :

সিরাজগঞ্জের সলঙ্গা থানার নলকা ইউনিয়নের নলকা ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় মালিকাধীন জমি থেকে জোড় পূর্বক অবৈধভাবে মাটি কেঁটে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে জমির মালিক আজিজুল হক বাদি হয়ে, পাঁচলিয়া গ্রামের মৃত কোবাদ আলী সরকারের ছেলে আরাফাত সরকার ও হাটিকুমরুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও চড়িয়া আকন্দপাড়া গ্রামের মৃত মোকছেদ আলী সরকারের ছেলে হেদায়েতুল আলম সহ অজ্ঞাত ৩০/৪০ জনের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদলতে একটি এম আর মামলা দায়ের করেছেন । মামলাটি বর্তমানে বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালত সিরাজগঞ্জে বিচারাধীন রয়েছে ।

মামলা সূত্রে জানাযায়, ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের সিরাজগঞ্জের সলঙ্গা থানার নলকা ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় আজিজুল হকের নিজস্ব সম্পত্তি থেকে বেশ কিছুদিন যাবৎ জোড় পূর্বক ট্রাক ভর্তি করে মাটি কেঁটে নিতে থাকে, আরফাত ও আলমের লোকজন । তাতে বাধাঁ দিলে জমির মালিককে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতিও হুমকি ধামকী দেয়। পরে উপায় না পেয়ে আদালতে মামলাটি দায়ের করেন জমির মালিক । এই মামলার তদন্তভার দেওয়া হয়েছে উপজেলা এসিল্যান্ড অফিসকে ।  

বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) সকালে সাহেবগঞ্জ ভূমি অফিসের তফসিলদার (নায়েব) শামসুল আলম মামলাটি তদন্ত করার জন্য গেলে। এ সময় ওই এলাকার বিভিন্ন জমির মালিকসহ প্রায় শত শত লোকজন ভীর জমায়, ক্ষোভ প্রকাশ করে এবং তারা এর সুষ্ঠু বিচার চায়। 

এ বিষয়ে জমির মালিক বাদী আজিজুল হকের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, আমার নিজস্ব সম্পত্তি থেকে বেশ কিছুদিন যাবৎ অবৈধভাবে মাটি কেঁটে নিয়ে যাচ্ছে কতিপয় কিছু মহল, এতে আমার জমি নিচু হয়ে যাচ্ছে ভবিষ্যতে এটা নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যেতে পারে। তাদেরকে বাধাঁ দিলে তারা নানাভাবে হুমকী ধামকী দেয় । ফলে উপায় না পেয়ে জমি রর্ক্ষাথে আদালতে মামলা দায়ের করিয়াছি ।

কিন্তু দু:খের বিষয় যে, উক্ত স্থান থেকে কেউ যাতে আর মাটি কাঁটতে না পারে, সেই জন্য সলঙ্গা থানা থেকে ১৪৪ ধারাযারীসহ, একটি নোটিশ প্রদান করে, তার পরেও মাটি কাঁটা থেমে নাই ।

সাহেবগঞ্জ ভূমি অফিসের তফসিলদার (নায়েব) শামসুল আলম বলেন, আমরা ইতি পূর্বে উক্ত স্থানটি তদন্ত করিয়াছি ২/৩ দিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট আমরা এসিলেন্ড অফিসে প্রেরণ করব ।

সলঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর জান্নাত মো: তাজুল হুদা জানান, মামলাটি বর্তমানে আদালতে বিচারাধীন রয়েছে ও এসিল্যান্ড অফিসকে তদন্ত করতে বলা হয়েছে । কেউ যাতে উক্ত স্থান থেকে মাটি কাঁটতে না পারে সে জন্য একটি নোটিশ প্রদান করা হয়েছে । এর পরেও কেউ যদি এই আইন অমান্য করে মাটি উত্তোলন করে, তার বিরুদ্ধে আমরা আইননুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।  






নামাজের সময়সূচি

সোমবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮
ফজর ৪:২৬
জোহর ১১:৫৬
আসর ৪:৪১
মাগরিব ৬:০৯
ইশা ৭:২০
সূর্যাস্ত : ৬:০৯সূর্যোদয় : ৫:৪৩